গদ্যপুস্তিকা নিয়ে এই মেলায় শ্যামলেস দাশ

দেওয়ান হাসন

সুবর্ণ বাগচী : ‘চিলেকোঠা’ প্রকাশনী থেকে বেরিয়েছে শ্যামলেস দাশের গদ্যপুস্তক ‘মরমীয়া সাধক দেওয়ান হাসন রাজা’; আগাগোড়া তিনফর্মা ব্যাপ্তির পুস্তিকাটিতে একটানা একটাই রচনা স্থান পেয়েছে, যে-রচনাটা পুস্তিকার একইসঙ্গে একমাত্র পাঠবস্তু ও নামরচনা।

না, তারও আগে একজোড়া রচনা আছে দেখা যাবে; এক হচ্ছে ‘ভূমিকা’; এবং দুই, ‘লেখকের কথা’; ভূমিকাটি লিখেছেন সামারীন দেওয়ান, ভূমিকানিম্নে ভূমিকাকারের নামস্বাক্ষরস্থলে পরিচয় দেয়া হয়েছে ‘হাসন রাজা গবেষক ও তাঁর প্রপৌত্র’ বলে; একই ব্যক্তির পরিচয় প্রিন্টার্সলাইনে দেয়া হয়েছে পুস্তিকা প্রকাশের পৃষ্ঠপোষক হিশেবে এবং যিনি হাসনের সাধনভূমি সুনামগঞ্জে অবস্থিত হাসন রাজা মিউজিয়ামের প্রতিষ্ঠাতা। কাজেই, একদিকের বিচারে, পুস্তিকাটা হাসন রাজা ফ্যামিলির পরিবীক্ষণ ও অনুমোদনপ্রাপ্ত। গবেষক ও লোকসংস্কৃতি সমুজদারদের কাছে এই পুস্তিকা আগ্রহসঞ্চার করতেই পারে।

এইভাবে ‘লেখকের কথা’ আর ‘ভূমিকা’ আলাপে গেছে একফর্মা পাক্কা। রইল বাকি দুই। সেই দুইফর্মা পাঠবস্তু অনুসন্ধিৎসু গবেষক ও পুস্তকপিপাসু পাঠকদের জন্য বরাদ্দ। যদিও হাসন রাজা সম্পর্কে বাংলাদেশে এবং ইন্ডিয়ায় বিস্তর রচনাপত্তর রয়েছে, এখনও বহু দিক নিয়া হাসনসমীক্ষা চালানোর জরুরৎ রয়েছে এবং সমীক্ষা চালুও রয়েছে বৈকি, এই পুস্তিকাটি সেদিক থেকে কেমন তথ্য ও উপাত্ত নতুন যোগান দিয়েছে সেইটাই শুধু দেখার। সেজন্যে পুস্তিকার কাছাকাছি হওয়া ছাড়া গত্যন্তর নাই।

কিন্তু রচয়িতানামের জায়গায় একেবারে ফ্রন্টকাভারেই পেশাগত পরিচয় ‘অধ্যাপক’ অভিধাসমেত উপস্থাপনের অপরিপক্বতা কি লেখকেরই অভিপ্রেত? হতেও পারে, এমনটা হামেশাই হতে দেখা যায় বটে। এমন বড় কোনো সমস্যা না সেইটা। মূল লেখাটুকু কতটা কাজের, বিবেচ্য তা-ই। কিন্তু দুইফর্মা পাঠবস্তু পরিসরের ক্ষীণ অবয়বের ভিতরে এত মুদ্রণজনিত অনবধানতা পাঠপীড়াকর। উপরন্তু পুস্তিকাটা আস্ত দুইফর্মা পাঠবস্ত সম্বলিত হলেও সম্ভবত ষোলো পয়েন্টের টাইপসাইজ এবং লাইনস্পেস্ প্রচুর, প্যারাস্পেস্ ডাবলেরও বেশি হতে পারে, দেখে অন্তত তা-ই মনে হয়, এই-সমস্ত আন্দাজে বলা যদিও; তবে এইসব বইয়ের কন্টেন্ট ভালো হলে তেমন ধর্তব্য নয়, ছাপামান এবং বাঁধাই অত্যন্ত উন্নত, কেবল কন্টেন্ট স্ট্যান্ডার্ড কি না তা জানতে চাইলে বইটা হাতে নেয়া চাই।

পেপারব্যাক পুস্তিকা। দৃষ্টিমনোহর। সিলেট থেকে ছাপা হয়েছে। চিলেকোঠা এইবারেই প্রথম প্রকাশনায় এসেছে। এই মেলায় চিলেকোঠার কোনো স্টল নাই। বই পেতে হলে লেখক অথবা প্রকাশকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। লেখক ইন্ডিয়াবাসী, শিলঙে থাকেন। প্রকাশকের সঙ্গে যোগাযোগ করা যেতে পারে। চিলেকোঠার সঙ্গে যোগাযোগ করা যায় সিলেটের সুরমা টাওয়ার নিচতলায় যেয়ে; এবং ০১৭১৩ ৮০৬ ৮৫৮ নাম্বারে সেলফোনে কন্ট্যাক্ট করা যেতে পারে। বইয়ের হাদিয়া গাত্রধার্য ১৫০.০০ বাংলাদেশী টাকা।

মরমীয়া সাধক দেওয়ান হাসন রাজা ।। শ্যামলেস দাশ ।। চিলেকোঠা প্রকাশনী ।। সিলেট ।। প্রকাশক : নেছার আহমদ জামাল ।। প্রকাশকাল : জানুয়ারি ২০১৭ ।। মূল্য : ১৫০ টাকা

Comments

comments

সুবর্ণ বাগচী

সুবর্ণ বাগচী

রাশপ্রিন্ট কন্ট্রিবিউটর

লেখকের অন্যান্য পোস্ট

Tags: , , , , ,

লেখকের অন্যান্য পোস্ট :

সাম্প্রতিক পোষ্ট

লেখকসূচি