এক গুচ্ছকবিতা । পিয়ালী জানা

তোমার মন্থনে উঠে আসা
লক্ষ্মী প্রতিমা গৌরবর্ণা নয়
নীলাভ
তোমার মন্থন বিষময়
অজান্তেই!

কুঠারে ঠিক কতটা ধার ছিল
নদীতে ঠিক কতটা বেড়েছিল জল
সম্পর্কটা কতটা ঘুণ খাওয়া ছিল
অভাব কতটা হাঁ করেছিল
বর্ণচোরার মতো নিজস্ব রঙে
সবটাই আলাদা আলাদা ভাবে চিনি
আজ হিসেবে গরমিল নেই কোনো,
তবে সবকটা অদৃশ্য সুতোর বুননে
কারো হাত শূন্য, বুক শূন্য কারো
হাতেনাতে বুঝে গেছি অঙ্ক শূন্যতেই শুরু
অঙ্ক মিলিয়ে যায় সেই শূন্যেই তবু তবু
টান কাটে কই ঘোর আসে বড়
চারিদিকে শুধু আধ খাওয়া
আধুনিকতা আধ খাওয়া সাবেকিয়ানা
জীবন মরণ দুঃখ প্রেম সব বাহানা হয়ে থেকে যায়।

দুপুরবেলা আমার মতন বোকারা ঘুমায়
আর কেঁপে উঠে ঠান্ডায় জেগে যায়
ঠাণ্ডা কনকনে ঠান্ডা চাঁদের তলায়
বোকারাই তড়িঘড়ি গোলাপ ওপড়ায়
আঘাত এঁকে দেয় শাপলার গায়
আমার ভাগের বাগান ছেড়েছি হেলায়
শুকিয়ে গেছে ফুল কালের খেলায়
কেঁদেছি এমন যা কখনো কাঁদিনি
কাঁদলে হবে কি মিছিমিছি
গরম ত গেছে,
জেগে দেখি শীত এসে গেছে
তুমি যাও বসন্ত ঠোঁটে নিয়ে
ঠিক যেমনটি তুমি চাও
তোমার জন্য উষ্ণ আগামী সূর্য।
নাহ আর আমি বুনব না আশা
হাসব না গাইব না গান
কারো সাথে মেশাটেশা নয়
মিলন ধৈর্য্য হারিয়ে ফেলেছি।

তোমার অবহেলাই জিতিয়ে দিয়েছে আমায়
বুঝিয়ে দিয়েছে তুমি কি অসম্ভব ভালোবাসো
হা হা হা হা হা
তোমার অবহেলা
ধরা পড়ে গেছ
তুমি যা তা
বন্যা বন্য ভাঙা গড়া অরণ্য
এরপরেও আমি প্রেম সহপাঠী
হা হা হা হা হা
ভয় নেই ভয় নেই
ভুলে যাব তুমি কতটা ভালোবাসো
ভুলে যাব তুমি না বলায়
বললে ঠিক কতখানি
হা হা হা হা হা
তুমি উলঙ্গভাবে ধরা পড়ে গেলে
হা হা হা হা হা কি ছেলে!

সাগরভরা আবেগীদের
এক জায়গায় এনে
গুলি করে হত্যা করা হোক!
ওরা ভয়ংকর
তোমাদের সব কাঁটাতার
ভেঙে দিতে পারে
নিষ্ঠুর নির্মম হাতে
পরিবর্তে দু’দেশের মাঝখানে
গেঁথে তুলতে পারে
রজনীর মালা অবিকল।
আগেই সাবধান করেছি
আবেগীদের রক্তজবা পরাও
নইলে বেড়া ভাঙবে
আগানে বাগানে ফুটবে
রক্তবীজের চারা গাছ হয়ে।

স্বাধীনতা এক নাবালিকা মেয়ে
মাংস রক্ত যাচ্ছে খুবলে খেয়ে
স্বাধীনতা এক কফিন ভরানো লাশ
উল্টো পিঠের রাজনীতি উল্লাস
স্বাধীনতা শুধু জাতের ভাঁজেতে কান্না
স্বাধীনতা নয় একটুও চুনিপান্না।

বেলা যায়
শরৎ এসেছে
তাই ছড়িয়ে গেলাম
গন্ধ মাতোয়ারা হবে বলে
তুমি ত এলে না এখনো
কুড়িয়ে নিতে ভোরবেলা
তুমি এখনো সেই ছেলেবেলা
তুমি এখনো সেই উদাসী
হুমম ঠিকই উদাসীনতা ভালোবাসি
তবে অধিকার হতে আরো আরো
আমাকে জড়িয়ে নাও কুড়িয়ে নাও
এসো এসো কুড়িয়ে নাও।

Comments

comments

পিয়ালী জানা

পিয়ালী জানা

জন্ম ১৯৮৮ হাওড়া জেলার বাগনানে। ইংরাজি সাহিত্যে স্নাতকোত্তর। পেশা শিক্ষকতা। কবিতা গদ্য এবং অনুবাদ সাহিত্যে মগ্ন থাকতে ভালোবাসেন। ইমেল : femalepoets2@gmail.com

লেখকের অন্যান্য পোস্ট

লেখকের সোশাল লিংকস:
Facebook

Tags: ,

লেখকের অন্যান্য পোস্ট :

সাম্প্রতিক পোষ্ট

লেখকসূচি