সাম্প্রতিক

রেবেকার চোখ । হাসান শাহরিয়ার

রেবেকা ফার্গুসন; পুরা নাম রেবেকা লুইসা ফার্গুসন সান্ডস্‌টর্ম— তার চোখ দুইটা খুব সুন্দর। এমআই সিরিজের শেষ ঝড় ‘ফল আউট’ অথবা তার আগের ‘রৌগ নেশন’ মুভিতে কী কী দেখছে দর্শকে? ক্রুজ ছুটতেছে ব্রিটিশ স্পাই সুলেমান লেইনের পিছে? সুলেমান লেইন— ব্রিটিশ এজেন্সি থেইকা বিতাড়িত এক হার্ডকোর স্কিল্ড স্পাই। এখন যার নিজেরই একটা স্পাই-এজেন্ট বাহিনী আছে। সুলেমান লেইন দুনিয়াটারে একটা নিউক্লিয়ার কেওসের দিকে নিয়া যাইতে চায়। ‘দ্য গ্রেটার দ্য সাফারিংস; দ্য গ্রেটার দ্য পিস’। ‘ফল আউট অব অল ইওর গুড ইন্টেনশন্স’…  আর কী দেখছে দর্শকে? ক্রুজের ইমেন্স স্টান্ট; একটা একটা দৃশ্যের লগে স্পাই-ওয়ার্ল্ডের একটা একটা হেভি লজিক; টম ক্রুজের ফের পাহাড় বাওয়া; কিলিং রানিং; ট্রিমিণ্ডাস রাইডিং অব মোটর-বাইক; এইসব?

আর যাইতে যাইতে তুমি কি কোন সীমানার দেখা পাবা? এই চোখ এমনই এক টানেল— ব্ল্যাক হোলের মতন তোমারে শুধু নিতেই থাকবে আরো আরো আরো অনেক ভিতরে। তার মাল্টিডাইমেনশনের ভিতর তোমার থ্রি-ডি অস্তিত্ব এত অসহায়; আচমকা টের পাইবা তুমি। রেবেকার চোখ এইভাবে তোমারে ঘুমাইতে দিবে না আর। ক্লান্তি আর অবসাদের মাঝখানে বইসা তোমারে টোকা দিয়া যাবে টিলার গায়ে গড়াইয়া নামা সন্ধ্যার মত।

আমি খালি দেখছি রেবেকার দুইটা চোখ; আসমানের মত ভাসা ভাসা দুইটা নীল চোখ। যেইসব মেয়েদের শুধু চোখ দুইটা সুন্দর- তারা রেবেকা। ডিপ এন্ড ডোপ; থ্রি-ডি’র পাহাড় বাইয়া গড়াইয়া পড়তেছে এক বিষাদের মত; যুদ্ধের ভিতর এনক্রিপ্টেড মেসেজের মত উইড়া যাওয়া এক চোরা ফ্রিকুয়েন্সি রেবেকার দুইটা চোখ— তোমার ভিতরে গিয়া কী সব বইলা আসবে সকাতরে। এপলের ব্র্যান্ডিং স্মাইলির মত রেবেকার চোখ— আস্তে আস্তে যেইটা মগজের ভিতর ক্রিয়েট কইরা দেয় তোমার সোশ্যাল স্টেটাস। ইয়াংকি মাস্তানির বিরুদ্ধে হুয়াউই’র অপ্রতিরোধ্য শিল্ড। এরপরে রেবেকার চোখ— কার্বন আর লেডের শহরে রেন্ডমলি দৌড়াইতে থাকা সরু স্পার্মের মত; ইউ ডোন্ট হ্যাভ আ নেচার এরাউন্ড। সো কিপেথ মি ইনসাইড ইউ। রেবেকার দুইটা চোখ হইলো— তোমার শুকাইতে থাকা ইনোসেন্স। রেবেকার দুইটা চোখ হইলো ভাষা আর খোলা রাস্তা; বিলাপহীন নিঃশ্বাসের দেখা যতদিন না পাইছো তুমি— এই ডিক্টেটরশিপ আর অস্তিত্ব-খাওয়া তাঁবুর ভিতর- সে তোমারে ভাষা দিয়া যাইবো; সে তোমারে ওই রাস্তার দিকে হাঁটাইয়া নিয়া যাইবো …

আর যাইতে যাইতে তুমি কি কোন সীমানার দেখা পাবা? এই চোখ এমনই এক টানেল— ব্ল্যাক হোলের মতন তোমারে শুধু নিতেই থাকবে আরো আরো আরো অনেক ভিতরে। তার মাল্টিডাইমেনশনের ভিতর তোমার থ্রি-ডি অস্তিত্ব এত অসহায়; আচমকা টের পাইবা তুমি। রেবেকার চোখ এইভাবে তোমারে ঘুমাইতে দিবে না আর। ক্লান্তি আর অবসাদের মাঝখানে বইসা তোমারে টোকা দিয়া যাবে টিলার গায়ে গড়াইয়া নামা সন্ধ্যার মত। মোটর-বাইকের ডিমারের মত রেবেকার চোখ; তোমার বেপরোয়া ফ্রন্ট গ্লাসে আঘাত করবে আলোর বুলেট। ঘন রাতে শহরের রাস্তায় মিছিল করা ট্রাকের হেডলাইট— রেবেকার চোখ। এই চোখে ধরাশায়ী নিঃসঙ্গ আততায়ী না পাহাড় না জঙ্গলে নিখোঁজ হবে আর; বরং স্পেইস-টাইমের প্যারাডক্সে মাইনা নিতে না পারা এক সমীকরণের মত ঝুইলা থাকবে কোথাও। রেবেকার চোখ ট্রাম্প-পুতিন-শিনজিং- নেতানিয়াহুর ভয়াল পরাজয়।

Comments

comments

হাসান শাহরিয়ার

হাসান শাহরিয়ার

জন্ম ৮ নভেম্বর ১৯৮৫, একটি কবিতার বই রেরিয়েছে ‘বালির ঘর’ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ jhs.phy@gmail.com

লেখকের অন্যান্য পোস্ট

লেখকের সোশাল লিংকস:
Facebook

Tags: , ,

লেখকের অন্যান্য পোস্ট :

সাম্প্রতিক পোষ্ট

লেখকসূচি