সাম্প্রতিক

কথা বলি নীরবে । পলাশ দত্ত

*
অনেক অনেক রঙ; স্বেচ্ছায়
চলে যায়, নানান ফুলের
কাছে। তুমি তাদের চেয়ে

দূরে; তুলে নাও স্মৃতির
খাতায়। ফুল চেনে না কে;
সে শুধু দ্যাখে— তোমায়;

*
সামান্য দুটি পা; দেখে,
ভুলে যায়— কোথায় যাবে।
দূরে, রয়ে যায়, দূরত্ব;

তোমার পায়ে; এত কাছে—
থেমে যায়, চাকা; ক্লান্ত
পৃথিবী যেমন; একা,—

*
উজানের জলে, সেই
ব’সে থাকে, একা; ছুঁয়ে
দিকচক্রবাল। সে তোমার

ছায়া— অনন্ত ফেরারি;
থেকে থেকে, ফিরে যায়—
দূরে, হৃদয়-বিহারী।

*
বেদনা; যদি খুঁজে
পাও- এ-জীবনে আবার;
তাহলে ফিরে এসো।

কথা তখন, হারাবে
না ব্যস্ততায়;— নীরবে
তাকাবে;— শান্ত পূর্ণ,

*
সেখানে; ভাষা নেই আর;
না-জেনে খোঁজা— ঝড়
বা পিপাসা; হারায় যে

আচমকা;— ফেরা নেই তার;
জেগে ওঠে; নিষ্প্রভ এক
রাতে; মাইল মাইল কোন্‌ দূরে,

*
কিছু মুখ মরণোত্তর,
কিছু বেদনার। তুমি
যা পাবে, সে সিদ্ধান্ত

একার। অক্ষত জীবন,
বিক্ষত স্মৃতি; ডেকে
যাবে— নিয়তি?, বিস্মৃতি;

*
যেখানে গাছ নেই, সেখানে
মানুষের মতো বসা নয়।
তার চে’ বরং, দু’চার বিন্দু

পাখি হয়ে যাক, ঝলসানো রোদে;
ডানার সাহসে, উড়ে পালাক;
সূর্যের কাছাকাছি, মেঘে।

*
তুমি তো ফুলের পাশে;
দাঁড়াও, প্রতিদিন। পাও
কী নতুন— একই তো ফুল?

পুরনো, সূর্যের মতো,
ফুলগুলি ফোটে;— যারা
আলোর মতো; স্বয়ং নবীন,

*
মানুষ; অতটা পারে
না: পূর্ণ ভালোবাসা
হৃদয়াতীত বোঝাপড়া;

সব সে রাখে— জীবনের
ভেতর; পাখিও স্বাধীন
বরং;— উড়ে গিয়ে বাঁচে,

*
গড়ানো ফুল;— পায়ের কাছে;
ভয় পায়; নিয়ে নেব নাকি!
পাতা, তীক্ষ্ণ লাল— ঠোঁটের

মতো। মাটিতে আঁকা,
মৃদু দুটি পা, ধরে
রাখো— চুম্বনের সকাল,

*
এসো ক্ষোভ, অন্ধকারে;—
ছুড়ে ফেলো, যা-কিছু
দিনের আলো; আর যা ভুল।

বর্ধিত অন্ধকারে,
লেখ সেসব, যা-সত্য;
এপাশে স্মৃতি;— আহত।

পলাশ দত্ত

কবি। জন্ম বাংলাদেশের চট্টগ্রামে, এখান ঢাকাবাসী। ক্যাশিয়ারের ডায়েরি, রবিকণা, গীতাঞ্জলি-চক্রে রবীন্দ্রনাথ, ব্রতমুখে দিনান্তের কথা, আত্মমগ্ন বিপ্লবী, বোদল্যার ও বোদল্যর, হারিয়ে যাওয়া কবিতা, মার্কিন নথিতে উনিশশো একাত্তর, ডেটা সাংবাদিকতা- ইত্যাদি তার কবিতা ও গবেষণার বই।

লেখকের অন্যান্য পোস্ট

লেখকের সোশাল লিংকস:
FacebookGoogle Plus

Tags: ,

লেখকের অন্যান্য পোস্ট :

সাম্প্রতিক পোষ্ট